Hindusthan Samachar
Banner 2 सोमवार, दिसम्बर 10, 2018 | समय 04:23 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

সরকারি সংস্কৃত মহাবিদ্যালয়ে ভূজপত্রে লিখিত পাণ্ডুলিপি সংরক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন রাজ্যপালের

By HindusthanSamachar | Publish Date: Dec 8 2018 7:58PM
সরকারি সংস্কৃত মহাবিদ্যালয়ে ভূজপত্রে লিখিত পাণ্ডুলিপি  সংরক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন রাজ্যপালের
গুয়াহাটি, ৮ ডিসেম্বর, (হি.স.) : গুয়াহাটি মহানগরের জালুকবাড়িতে অবস্থিত কৃষ্ণকান্ত সন্দিকৈ সরকারি মহাবিদ্যালয়ে আজ শনিবারে ভূজপত্রে লিখিত পাণ্ডুলিপি সংরক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন রাজ্যপাল অধ্যাপক জগদীশ মুখি। ভারত সরকারের ন্যাশনাল মিশন ফর ম্যানুস্ক্রিপ্ট এবং হেরিটেজ কনজারভেশন সোসাইটি আসামের সহযোগিতায় ভূজপত্র পাণ্ডুলিপি সংরক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন রাজ্যপাল অধ্যাপক জগদীশ মুখি। ভূজপত্রে লিখিত পাণ্ডুলিপি সংরক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করে রাজ্যপাল বলেন, অসমে অনেক সত্ৰ, নামঘর এমন-কি ব্যক্তিগতভাবে বহু মানুষ ভূজপত্রে লিখিত বা অন্যান্য পুরনো গ্রন্থগুলো বিজ্ঞানসম্মতভাবে সংরক্ষণ করে রেখেছেন। পুরনো গ্রন্থ সংরক্ষণ করে রাখার বিষয়টি এক মহত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। ভূজপত্র বা অন্যান্য পুরনো বই একটি দেশের জাতির ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির ধারক বলে ব্যাখ্যা করেন তিনি। রাজ্যপাল বলেন, এই কেন্দ্রের মাধ্যমে প্রাচীনকালের সঙ্গে হালআমলের বর্তমান যুগের এক যোগসূত্র তৈরি হবে। রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে বিদ্যমান পুরনো ভূজপত্রে লেখা বা পুরনো দিলে রচিত বই তথা গ্রন্থগুলিকে যত্ন সহকারে সংরক্ষণ করে এক গুরু দায়িত্ব পালন করেছেন সংরক্ষকরা। তাই সংশ্লিষ্টদের তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন। আজকের অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন অসম সরকারের শিক্ষামন্ত্রী সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, পুরনো আমলের ভূজপত্রে রচিত বই তথা পুরনো আমলের গ্রন্থ সংরক্ষণের ক্ষেত্রে অসম সরকারের তরফ থেকে সংস্কৃত মহাবিদ্যালয়কে সমস্ত ধরনের সহযোগিতা প্রদান করা হবে। তিনি আরও বলেন, ভূজপত্রে লেখা গ্রন্থ সংরক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা অনেক লাভবান হবেন। অনুষ্ঠানে বহু গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ভূজপত্রে লেখা বই ও অন্যান্য পুরনোকালের গ্রন্থগুলোকে বিজ্ঞানসম্মতভাবে সংরক্ষণ করার জন্য অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতিও আনা হবে বলে জানানো হয়েছে। হিন্দুস্থান সমাচার / দেবযানী / এসকেডি
image