Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, नवम्बर 18, 2018 | समय 07:05 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

লিড…কংগ্রেস কখনই ছত্তিশগড়ের ভালো করতে পারবে না, নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করার পর দাবি অমিত শাহের

By HindusthanSamachar | Publish Date: Nov 10 2018 9:35PM
লিড…কংগ্রেস কখনই ছত্তিশগড়ের ভালো করতে পারবে না, নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করার পর দাবি অমিত শাহের
রায়পুর, ১০ নভেম্বর (হি.স.): শহুরে নকশালদের লজ্জাজনকভাবে ‘বিপ্লবী’ আখ্যা দিচ্ছে কংগ্রেস| শুক্রবার ভোট প্রচারে গিয়ে কংগ্রেসকে এই ভাষাতেই তীব্র সমালোচনা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী| ছত্তিশগড়ের জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রী আবেদন করেছিলেন, ‘কংগ্রেসকে এবার উচিত শিক্ষা দিন|’ প্রধানমন্ত্রীর পর এবার ছত্তিশগড় বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে কংগ্রেসকে তুলোধনা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ| প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য টেনে এনে শনিবার অমিত শাহ বলেছেন, ‘নকশালবাদের মধ্যে বিপ্লব দেখতে পায় যেই দল, সেই দল কখনই ছত্তিশগড়ের ভালো করতে পারে না|’ প্রধানমন্ত্রীর পর এবার উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ| ছত্তিশগড়ে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে খোলাখুলি কংগ্রেসের সঙ্গে মাওবাদীদের যোগসাজশের অভিযোগ তুললেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ| ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংকে দুর্নীতিগ্রস্ত বলে কটাক্ষ করলেন রাহুল গান্ধী। শনিবার ছত্তিশগড়ের কাঙ্কেরে নির্বাচনীয় জনসভায় এমনই আক্রামনাত্মক ভাষায় বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন কংগ্রেস সভাপতি। এদিনের জনসভায় রাহুল গান্ধী বলেন, মোদীজি দাবি করেন যে তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। কিন্তু, ছত্তিশগড়ে এলে তিনি রাজ্যবাসীদের বলেন না যে মুখ্যমন্ত্রী রমণ সিং দুর্নীতিগ্রস্ত। কংগ্রেসকে আক্রমণ করার প্রাক্কালে শনিবার ছত্তিশগড় বিধানসভা নির্বাচনের নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এবং ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিং| এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি ধরমলাল কৌশিক, মন্ত্রী বৃজমোহন আগরওয়াল, অজয় চন্দ্রাকর, রাজেশ ভূষণ, প্রেম প্রকাশ পাণ্ডে এবং অমর আগরওয়াল-সহ রাজ্য বিজেপির শীর্ষস্থানীয় নেতারা| নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করার পর ছত্তিশগড়ের রাজধানী রায়পুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অমিত শাহ বলেছেন, ‘বিগত ১৫ বছরে ছত্তিশগড়ের আমূল পরিবর্তন এনেছে রমন সিং সরকার| এছাড়াও নকশালবাদ দমনেও প্রভূত সাফল্য মিলেছে|’ পাশাপাশি কংগ্রেসকে আক্রমণ করে অমিত শাহ বলেছেন, ‘নকশালবাদের মধ্যে বিপ্লব দেখতে পায় যেই দল, সেই দল কখনই ছত্তিশগড়ের ভালো করতে পারে না|’ অমিত শাহ আরও বলেছেন, বিগত ১৫ বছরে পাওয়ার হাব-এ পরিণত হয়েছে ছত্তিশগড়, সিমেন্ট হাব এবং ইস্পাত হাব তৈরি হয়েছে| এবার ডিজিটল হাব তৈরি হওয়ার পথে এগিয়ে চলেছেন রমন সিং| বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি বিশ্বাস, চতুর্থবারও ছত্তিশগড়ে সরকার গড়বে ভারতীয় জনতা পার্টি| তাঁর মতে, অন্য রাজনৈতিক দলের কাছে এবারের নির্বাচন হয়তো জয়-পরাজয়ের ভোট, কিন্তু বিজেপির কাছে এবারের নির্বাচন ছত্তিশগড় নির্মাণের ভোট| ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংকে দুর্নীতিগ্রস্ত বলে কটাক্ষ করলেন রাহুল গান্ধী। শনিবার ছত্তিশগড়ের কাঙ্কেরে নির্বাচনীয় জনসভায় এমনই আক্রামনাত্মক ভাষায় বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন কংগ্রেস সভাপতি। এদিনের জনসভায় রাহুল গান্ধী বলেন, মোদীজি দাবি করেন যে তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। কিন্তু, ছত্তিশগড়ে এলে তিনি রাজ্যবাসীদের বলেন না যে মুখ্যমন্ত্রী রমণ সিং দুর্নীতিগ্রস্ত। ৫০০০ কোটি টাকার চিটফাণ্ড দুর্নীতি হয়েছে। ৩১০টি এফআইআর দায়ের হয়। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী জড়িত থাকার কারণে কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। দুর্নীতি নিয়ে রমণ সিংয়ের কৈফিয়ত দাবি করেন রাহুল গান্ধী। শিল্পপতিদের ঋণ মকুব নিয়েও এদিন সরব হন রাহুল গান্ধী। এদিন তিনি বলেন, বিগত পাঁচবছরে ১৫ জন ঘনিষ্ঠ শিল্পপতিদের ৩.৫ লক্ষ কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু একশো দিনের কাজের জন্য ৩৫০০০ কোটি টাকা দিতে অনীহা বর্তমান প্রশাসনের। ১৫ জন ঘনিষ্ঠ শিল্পপতিদের ঋণ মকুব দশবার করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। রাহুল গান্ধী ঘোষণা করেন ছত্তিশগড়ে এবং মধ্যপ্রদেশে যদি কংগ্রেস ক্ষমতায় আসে তবে এই দুইটি রাজ্যকে দেশের কৃষি কেন্দ্রে পরিণত করা হবে। ১৫ জন ঘনিষ্ঠ শিল্পপতিদের কাছে সম্পদের চাবি রয়েছে। কিন্তু কংগ্রেস সেই চাবি সাধারণ মানুষের মধ্যে বন্টন করতে চায়। রাজ্যের বেকারত্ব সমস্যার কথা তুলে ধরে রাহুল গান্ধী বলেন, ১৫ বছর রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী রমণ সিং। রাজ্যের ৪০ লক্ষ যুবক-যুবতী কর্মহীন। ৬৫ শতাংশ জমিতে কোনও সেচ কাজ হয় না। ৫৬০০০ একর জমি আদিবাসীদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বন্দুদের দিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাইরে থেকে লোক নিয়ে এসে কাজ চালাচ্ছে বর্তমান সরকার। কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে এই আউটসোর্সিং বন্ধ করে দেবে। মানুষ কংগ্রেস সরকারকে নিজেদের সরকার হিসেবে দেখবে। কোনও বিশেষ ধর্ম, জাত বা জেলার জন্য কংগ্রেস কাজ করবে না। সার্বিক উন্নয়নই হচ্ছে কংগ্রেসের লক্ষ্য। প্রধানমন্ত্রীর পর এবার উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ| ছত্তিশগড়ে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে খোলাখুলি কংগ্রেসের সঙ্গে মাওবাদীদের যোগসাজশের অভিযোগ তুললেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ| শনিবার ছত্তিশগড়ের লোরমিতে নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, ‘নিজেদের স্বার্থপর উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার জন্য এই অঞ্চলে নকশালবাদের প্রচার করছে কংগ্রেস| এই সমস্যা মোকাবিলা করার জন্য কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করছে বিজেপি সরকার|’ কংগ্রেসকে আক্রমণ করে যোগী আদিত্যনাথ আরও বলেছেন, ‘শুধুমাত্র রাজনৈতিক সুবিধার জন্য জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে খেলা করছে কংগ্রেস| ছত্তিশগড়, ঝাড়খণ্ড, উত্তর-পূর্ব অথবা কাশ্মীর হোক, জাতীয় নিরাপত্তার ঝুঁকি নিয়েই রাজনীতি করছে কংগ্রেস| কিন্তু, ভারতীয় জনতা পার্টি সর্বাগ্রে জাতীয় নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার দেয়| জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে খেলা করলে, আমরা কথনই তা সহ্য করব না| জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে খেলা করার অধিকার কারও নেই|’ পাশাপাশি ছত্তিশগড়ে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়শী প্রশংসা করেছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ| যোগীর কথায়, ‘স্বাধীনতার পর এই প্রথমবার একজন প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন ২০২২ সালের মধ্যে, দেশের কোনও গরিব নিজস্ব গৃহ ছাড়া থাকবে না| কেন্দ্রে যদি বিজেপি সরকার না থাকত, ছত্তিশগড়ের জনসাধারণ নিজস্ব বাড়ি পেতেন না, যা তাঁরা এখন পাচ্ছেন|’ হিন্দুস্থান সমাচার/রাকেশ/শুভঙ্কর/
image