Hindusthan Samachar
Banner 2 रविवार, अक्तूबर 21, 2018 | समय 11:37 Hrs(IST) Sonali Sonali Sonali Singh Bisht

চিনের মাটিতে ঐতিহাসিক ম্যাচে চিনকে আটকে দিল ভারত

By HindusthanSamachar | Publish Date: Oct 13 2018 9:45PM
চিনের মাটিতে ঐতিহাসিক ম্যাচে চিনকে আটকে দিল ভারত
সুঝৌ, ১৩ অক্টোবর (হি.স.) : চিনের মাটিতে ঐতিহাসিক ম্যাচের আগে ব্লু টাইগারসরা নানা হুঙ্কার ছুঁড়ে দিলেও চিনের বিরুদ্ধে যে ভারত জয় তুলে নেবে, সেটা আশা করেননি ভারতের অতি বড় ফুটবল সমর্থকও। তবে মার্সেলো লিপ্পির প্রশিক্ষণাধীন শক্তিশালী চিনের বিরুদ্ধে ড্র করাও যে কম বড় কথা নয়। শনিবার সুঝৌ অলিম্পিক স্পোর্টস সেন্টার স্টেডিয়ামে ঠিক সেটাই করে দেখালেন সন্দেশ ঝিঙ্গান, গুরপ্রীত সাঁধুরা। চিনের মাটিতে চিনা ড্রাগনদেরই রুখে দিল ভারতীয় ফুটবল দল। ঐতিহাসিক ভারত-চিন আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ গোলশূন্য ভাবে শেষ হয়। এর আগে ১৭ বারের সাক্ষাতে ১২ বারই চিনের কাছে হার স্বীকার করতে হয়েছে ভারতীয় ফুটবল দলকে। পাঁচটি ম্যাচ ছিল অমিমাংসিত। তবে ভারত-চিনের মধ্যে শনিবারের সাক্ষাত ছিল এমন একটি প্রেক্ষাপটে, যখন গত দু’বছরে তাঁদের পারফরম্যান্সের নিরীখে ফিফা র্যা ঙ্কিংয়ে প্রভূত উন্নতি করেছে ভারতীয় দল। অন্যদিকে ইতালির বিশ্বকাপজয়ী কোচ মার্সেলো লিপ্পির প্রশিক্ষণে এশিয়া ফুটবলে পাওয়ার হাউস হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করেছে চিনা ড্রাগনরা। উত্তেজনার ঘনঘটায় ঘরের মাঠে এদিন খেলার শুরু থেকেই ম্যাচে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করতে শুরু করে চিন। যদিও প্রতি আক্রমণে ম্যাচের ১৩ মিনিটে গোলের খুব কাছে পৌঁছে যায় মেন ইন ব্লু। প্রীতম কোটালের একটি শট এক্ষেত্রে দুরন্ত দক্ষতায় রুখে দেন চিনা গোলরক্ষক ইয়ান জুনলিং। আক্রমণে ভারতের দুর্গকে ব্যতিব্যস্ত রাখলেও চিন সেই অর্থে প্রথম ইতিবাচক সুযোগ পায় ম্যাচের ২৪ মিনিটে। ১২ গজ দূর থেকে গাও লিনের এযাত্রায় রক্ষা করেন গুরপ্রীত সিং সাঁধু। আক্রমণ প্রতি আক্রমণে খেলা চললেও ঐতিহাসিক ম্যাচের প্রথমার্ধ রয়ে যায় গোলশূন্যই। দ্বিতীয়ার্ধে তিনটি পরিবর্তন করে ম্যাচে ডেডলক খুলতে তৎপর হয়ে ওঠেন লিপ্পি। সেই লক্ষ্যে বিরতির পর পাঁচ মিনিটের মধ্যেই তিন তিনবার গোলের খুব কাছে পৌঁছে যায় চিন। তবে গোল তুলে নিতে পারেনি তারা। শেষ পর্যন্ত কোনও দলই গোলের খাতা খুলতে না পারায় উত্তেজক ড্রয়েই শেষ হয় ঐতিহাসিক ম্যাচ। এই ড্রয়ের ফলে শেষ তিন ম্যাচে চিনের জয় অধরা রইলেও ঐতিহাসিক ম্যাচে ঐতিহাসিক ফলাফল করেই দেশে ফিরছেন সুনীলরা।হিন্দুস্থান সমাচার/সঞ্জয়
image